• সারাদেশ

    অনুমোদনহীন রেস্তোঁরার বিরুদ্ধে শীঘ্রই ব্যবস্থা নিতে মাঠে নামবে ট্যূরিষ্ট পুলিশ

      প্রতিনিধি ২৫ আগস্ট ২০২২ , ৩:২৮:০২ প্রিন্ট সংস্করণ

    আজিজ উদ্দিন॥

    রেস্তোরাঁর মালিকদের সাথে আজ সভায় অতিরিক্ত ট্যূরিষ্ট পুলিশ সুপার,খাবারের মান ও দামের সামঞ্জস্য রেখে ব্যবসা করতে রেস্তোরাঁ মালিকদের অনুরোধ করেছেন ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম।

    তিনি বলেন, ব্যবসা করবেন, ঠিক আছে। কিন্তু মান ও দামের সাথে সামঞ্জস্য রাখতে হবে। বেশি দামে যাতে পর্যটকরা না ঠকেন। অভিযোগ না করেন। অতিরিক্ত দাম আদায়ে অভিযুক্ত ও অনুমোদনহীন রেস্তোরাঁর বিরুদ্ধে শীঘ্রই অভিযানে মাঠে নামবে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

    বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে ট্যুরিষ্ট পুলিশের কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত ‘পর্যটকদের হয়রানিরোধে রেস্তোরাঁ কর্মীদের করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় মো. রেজাউল করিম এসব কথা বলেন।

    ট্যুরিষ্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আলী বলেন, আমরা বৈধভাবে ব্যবসা করছি। কিন্তু অনেকের ট্রেড লাইসেন্স নেই। বৈধতা ছাড়া ব্যবসা করছে। ভাসমান দোকানদাররা ভ্যাট-ট্যাক্স দিতে হয় না। তাদের কারণে সৌন্দর্য হারাচ্ছে পর্যটন নগর।

    সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম ডালিম বলেন, হোটেল মোটেল জোনে ভাসমান দোকানগুলোর কারণে বদনাম হচ্ছে। এসব দোকান থেকে যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলা হয়। কোন নিয়ন্ত্রণ নেই তাদের।

    রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম বলেন, হোটেল রেস্তোরাঁয় কর্মরতদের ইউনিফর্ম ও আইডি কার্ড দিতে হবে। পর্যটক ছাড়া রাতের বেলায় বিনা করণে স্থানীয় লোকজন ঘোরাফেরা করতে পারবে না। খাবারের দাম ও মান সমন্বয় রাখতে হবে।

    পরিচ্ছন্নতা ও মানের ব্যাপারে আপস করা যাবে না। সমিতির বাইরে থাকা রেস্তোরাঁগুলোর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভোক্তা অধিকারের সহযোগিতায় রবিবার থেকে অভিযান চালাবে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

    তিনি বলেন, নিরাপত্তার স্বার্থে প্রতিষ্ঠানে সিসি ক্যামেরা রাখবেন। খাবারের মেনু ও মূল্য তালিকা ট্যুরিস্ট পুলিশ অফিসে জমা দিবেন। যত্রতত্র আবর্জনা ফেলবেন না।

    পর্যটকদের সুবিধার্থে ওয়েবসাইট করবে ট্যুরিস্ট পুলিশ। আবাসিক হোটেল ও রেস্তোরাঁসহ পর্যটন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের তালিকা থাকবে সেখানে।
    ওয়েবসাইটের সুবাদে সব ধরণের সেবা সংক্রান্ত তথ্য এক জায়গায় পাবে পর্যটকেরা।

    সুশৃঙ্খল, সুন্দর একটি পর্যটন নগরী উপহার দিতে সবার সমন্বিত কাজ করা দরকার বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রেজাউল করিম। এই জন্য সংশ্লিষ্টদের আন্তরিক হওয়ার আহবান জানান তিনি।

    মতবিনিময় সভায় সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুজ্জামান, ইন্সপেক্টর গাজি মিজানুর রহমানসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

    এইচ/কে

    আরও খবর

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ