ঢাকা ১২:০৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীপুরে ঈদ পুনর্মিলনী ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত ঢাকার বুকে মাগুরা জেলার প্রতিনিধিত্বকারী এক গর্ব ও অহংকারের নাম মাগুরা লায়ন্স ক্রিকেট ক্লাব শ্রীপুরে সবুজ আন্দোলনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বিআরটিসির বাসেও চলছে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সৌদির সঙ্গে কাল বাংলাদেশেও হতে পারে ঈদ শ্রীপুরে দেশ ও প্রবাসী সমন্বয় কল্যাণ তহবিলের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানাল ফায়ার সার্ভিস চৌদ্দগ্রামে আলকরা প্রবাসী কল্যাণ’র উদ্যাগে ইমাম খতিবদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ফ্রিতে সিম কিনে বিপাকে অর্ধশত পরিবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন ছাত্র উপদেষ্টার দায়িত্ব হস্তান্তর
ব্রেকিং নিউজ ::

 ৭কলেজের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু: ২১ মার্চ ২০২৪,আবেদন শেষ: ২৫ এপ্রিল ২০২৪ * এ বছর জনপ্রতি ফিতরার হার সর্বনিন্ম ১১৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৯৭০ টাকা *

আওয়ামী লীগের আগেই হবে ছাত্রলীগের ৩০ তম সম্মেলন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৫৮:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ অক্টোবর ২০২২
  • / ৩৫৯৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আগেই আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগকে সম্মেলন করার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার (৩০ অক্টোবর) এ নির্দেশনার কথা জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রবিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের আগে এই ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলের সম্মেল হবে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের আগেই মেয়াদোত্তীর্ণ সব সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোর সম্মেলন করে ফেলব। তিনি আরও জানান, আমরা সমন্বয় করছি এই ব্যাপারে। নেত্রীর উপস্থিতিতে সম্মেলন করতে চান সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলো। তাঁর সময়সূচির সঙ্গে মিলিয়ে তারিখগুলো দেয়া হবে বলেও জানান কাদের।

ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির মেয়াদ পেরিয়ে গেছে ২০২১ সালে ৩১ জুলাই। আর ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, দুই বছর পর পর হওয়ার কথা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সম্মেলন। সেজন্য, সবার নজর ছিলো সংগঠনটির সাংগঠনিক অভিভাবক শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের দিকে। সহযোগী সংগঠন যাদের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে, তাদেরও সম্মেলন দাবি জোরালো ছিলো অনেকদিন ধরেই। পাশাপাশি, দলটির সহযোগী সংগঠন যাদের মেয়াদ উত্তীর্ণদেরও সম্মেলন নিয়ে আগ্রহ রয়েছে নেতা-কর্মীদের।

এর আগে, গত ৭ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ও অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনগুলোর সাংগঠনিক বিষয়গুলো নিয়ে নির্দেশনা দেন। যদিও, আশা করা হচ্ছিল ওই সভা থেকে জানা যাবে সম্মেলনের তারিখ। কিন্তু সভা থেকে কোনো সিদ্ধান্ত পায়নি সম্মেলন প্রত্যাশীরা। পরবর্তীতে, গুঞ্জন ছিলো গত সেপ্টেম্বরে সম্মেলন হবার। কিন্তু, দলীয় অভিভাবক শেখ হাসিনার কোনো নির্দেশনা না থাকায় আলোর মুখ দেখেনি সম্মেলনের ওই গুঞ্জনও। ফলে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর নতুন করে অনেকটাই আশাবাদী হচ্ছেন ৩০ সম্মেলন ঘিরে পদ-প্রত্যাশীরা।

বাংলাদেশের বার্তা

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

আওয়ামী লীগের আগেই হবে ছাত্রলীগের ৩০ তম সম্মেলন

আপডেট সময় : ০৩:৫৮:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ অক্টোবর ২০২২

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আগেই আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগকে সম্মেলন করার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার (৩০ অক্টোবর) এ নির্দেশনার কথা জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রবিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের আগে এই ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলের সম্মেল হবে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের আগেই মেয়াদোত্তীর্ণ সব সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোর সম্মেলন করে ফেলব। তিনি আরও জানান, আমরা সমন্বয় করছি এই ব্যাপারে। নেত্রীর উপস্থিতিতে সম্মেলন করতে চান সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলো। তাঁর সময়সূচির সঙ্গে মিলিয়ে তারিখগুলো দেয়া হবে বলেও জানান কাদের।

ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির মেয়াদ পেরিয়ে গেছে ২০২১ সালে ৩১ জুলাই। আর ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, দুই বছর পর পর হওয়ার কথা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সম্মেলন। সেজন্য, সবার নজর ছিলো সংগঠনটির সাংগঠনিক অভিভাবক শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের দিকে। সহযোগী সংগঠন যাদের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে, তাদেরও সম্মেলন দাবি জোরালো ছিলো অনেকদিন ধরেই। পাশাপাশি, দলটির সহযোগী সংগঠন যাদের মেয়াদ উত্তীর্ণদেরও সম্মেলন নিয়ে আগ্রহ রয়েছে নেতা-কর্মীদের।

এর আগে, গত ৭ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ও অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনগুলোর সাংগঠনিক বিষয়গুলো নিয়ে নির্দেশনা দেন। যদিও, আশা করা হচ্ছিল ওই সভা থেকে জানা যাবে সম্মেলনের তারিখ। কিন্তু সভা থেকে কোনো সিদ্ধান্ত পায়নি সম্মেলন প্রত্যাশীরা। পরবর্তীতে, গুঞ্জন ছিলো গত সেপ্টেম্বরে সম্মেলন হবার। কিন্তু, দলীয় অভিভাবক শেখ হাসিনার কোনো নির্দেশনা না থাকায় আলোর মুখ দেখেনি সম্মেলনের ওই গুঞ্জনও। ফলে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর নতুন করে অনেকটাই আশাবাদী হচ্ছেন ৩০ সম্মেলন ঘিরে পদ-প্রত্যাশীরা।

বাংলাদেশের বার্তা