ঢাকা ০৬:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
দুর্গাপুরে আওয়ামী লীগের কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত অবিবাহিত তরুণীর নামে মাতৃত্বকালীন ভাতা নেন চেয়ারম্যান  শ্রীপুরে পীর-আওলিয়ার মাজার জিয়ারতের মধ্যদিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রাজন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পুরস্কার পেলেন কুবির চার শিক্ষার্থী জাতীয় পদক প্রাপ্ত সাবেক প্রধান শিক্ষক কাজী ফয়জুর রহমানের দাফন সম্পন্ন শ্রীপুরে ঈদ পুনর্মিলনী ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত ঢাকার বুকে মাগুরা জেলার প্রতিনিধিত্বকারী এক গর্ব ও অহংকারের নাম মাগুরা লায়ন্স ক্রিকেট ক্লাব শ্রীপুরে সবুজ আন্দোলনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বিআরটিসির বাসেও চলছে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সৌদির সঙ্গে কাল বাংলাদেশেও হতে পারে ঈদ
ব্রেকিং নিউজ ::

 ৭কলেজের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু: ২১ মার্চ ২০২৪,আবেদন শেষ: ২৫ এপ্রিল ২০২৪ * এ বছর জনপ্রতি ফিতরার হার সর্বনিন্ম ১১৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৯৭০ টাকা *

কক্সবাজারে প্রেমিকা ভাগিয়ে নেয়ায়, বন্ধুকে হত্যা করে প্রতিশোধ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৩:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ জুন ২০২৩
  • / ৩৫৯০ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আজিজ উদ্দিন।।

প্রেমের কারণে জীবন দিতে হলো প্রেমিক প্রেমিকার।
প্রেমিককে হত্যা করা হয়, প্রেমিকা বিষপানে মৃত্যু বরণ করেন।

সোমবার (২৬ জুন) বিকাল ৫টার সময় কক্সবাজার পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান বিপিএম। এই সময় তিনি হত্যা কান্ডের বর্ণানা দেন।

পুলিশ সুপার জানান, নান্নুর দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক এক কিশোরীর সাথে। নান্নু খারাপ ছেলে, ইয়াবা-গাঁজাসহ মাদক সেবন করে বলে ভুল বুঝিয়ে প্রেমিকা এবং নান্নুর মধ্যে ফাটল ধরায় এবাদুল্লাহ। পরে ওই কিশোরীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে এবাদুল্লাহ।

এসব জানার পর নান্নু, সালাউদ্দিন, রাকিব মিলে এবাদুল্লাহকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী শুক্রবার রাতে ফোন করে পশ্চিম কুতুবদিয়া পাড়ার সমুদ্রের পাড়ে ঝাউবাগানে আসতে বলে এবাদুল্লাকে। তার পকেট থেকে মোবাইল বের করে এবাদুল্লার প্রেমের বিভিন্ন এসএমএস, কল রেকর্ড নান্নুর প্রেমিকা এবং এবাদুল্লার এক সাথে তোলা ছবি দেখতে পায় নান্নু। তখন নান্নু ক্ষুব্ধ এবং উত্তেজিত হয়ে পড়ে।

এই প্রেম ভালবাসা-ই কাল হলো এবাদুল্লাহর জীবনে। ভালবাসাকে কেন্দ্র করে এবাদুল্লাহকে তিনজন মিলে নৃশংসভাবে হত্যা করে। প্রথমে তিনজনে রশি পেঁচিয়ে হত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে পরে ১১ টি ছুরিকাঘাত করে মৃত্যু নিশ্চিত করে এবাদুল্লাহর।

পরদিন শনিবার ঝাউবাগানের বালিতে পড়ে থাকা এবাদুল্লাহর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার দুদিন পর এই ঘটনার মুলহোতা রাকিবকে গ্রেফতার করে সোমবার বিকেলে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনার বর্ণনা দেন পুলিশ সুপার।

আসামি রাকিবকে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে চট্টগ্রাম থেকে আটক করা হয়েছে জানিয়ে পুলিশ সুপার জানান, অপরাধ করে কেউ রেহাই পাবে না।

আসামি রাকিবের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে এবং অন্যান্য আসামিদের ধরতে তৎপরতা চলমান আছে বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

পুলিশ সুপার আরো জানান, এবাদুল্লাহর প্রেমিকা এবাদুল্লাহ হত্যারর খবর শুনে বিষ পান করে মেয়েটিও আত্যহত্যা করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

কক্সবাজারে প্রেমিকা ভাগিয়ে নেয়ায়, বন্ধুকে হত্যা করে প্রতিশোধ

আপডেট সময় : ০৫:৪৩:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ জুন ২০২৩

আজিজ উদ্দিন।।

প্রেমের কারণে জীবন দিতে হলো প্রেমিক প্রেমিকার।
প্রেমিককে হত্যা করা হয়, প্রেমিকা বিষপানে মৃত্যু বরণ করেন।

সোমবার (২৬ জুন) বিকাল ৫টার সময় কক্সবাজার পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান বিপিএম। এই সময় তিনি হত্যা কান্ডের বর্ণানা দেন।

পুলিশ সুপার জানান, নান্নুর দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক এক কিশোরীর সাথে। নান্নু খারাপ ছেলে, ইয়াবা-গাঁজাসহ মাদক সেবন করে বলে ভুল বুঝিয়ে প্রেমিকা এবং নান্নুর মধ্যে ফাটল ধরায় এবাদুল্লাহ। পরে ওই কিশোরীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে এবাদুল্লাহ।

এসব জানার পর নান্নু, সালাউদ্দিন, রাকিব মিলে এবাদুল্লাহকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী শুক্রবার রাতে ফোন করে পশ্চিম কুতুবদিয়া পাড়ার সমুদ্রের পাড়ে ঝাউবাগানে আসতে বলে এবাদুল্লাকে। তার পকেট থেকে মোবাইল বের করে এবাদুল্লার প্রেমের বিভিন্ন এসএমএস, কল রেকর্ড নান্নুর প্রেমিকা এবং এবাদুল্লার এক সাথে তোলা ছবি দেখতে পায় নান্নু। তখন নান্নু ক্ষুব্ধ এবং উত্তেজিত হয়ে পড়ে।

এই প্রেম ভালবাসা-ই কাল হলো এবাদুল্লাহর জীবনে। ভালবাসাকে কেন্দ্র করে এবাদুল্লাহকে তিনজন মিলে নৃশংসভাবে হত্যা করে। প্রথমে তিনজনে রশি পেঁচিয়ে হত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে পরে ১১ টি ছুরিকাঘাত করে মৃত্যু নিশ্চিত করে এবাদুল্লাহর।

পরদিন শনিবার ঝাউবাগানের বালিতে পড়ে থাকা এবাদুল্লাহর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার দুদিন পর এই ঘটনার মুলহোতা রাকিবকে গ্রেফতার করে সোমবার বিকেলে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনার বর্ণনা দেন পুলিশ সুপার।

আসামি রাকিবকে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে চট্টগ্রাম থেকে আটক করা হয়েছে জানিয়ে পুলিশ সুপার জানান, অপরাধ করে কেউ রেহাই পাবে না।

আসামি রাকিবের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে এবং অন্যান্য আসামিদের ধরতে তৎপরতা চলমান আছে বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

পুলিশ সুপার আরো জানান, এবাদুল্লাহর প্রেমিকা এবাদুল্লাহ হত্যারর খবর শুনে বিষ পান করে মেয়েটিও আত্যহত্যা করে।