• নির্বাচন

    কুমিল্লায় নৌকার বিপরীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হচ্ছেন যেসব হেভিওয়েট রাজনীতিবিদ

      প্রতিনিধি ২৯ নভেম্বর ২০২৩ , ৪:২৮:১৯ প্রিন্ট সংস্করণ

    আগামী ৭ জানুয়ারী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। ২৬ নভেম্বর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ২৯৮ আসনে নৌকার মাঝি চূড়ান্ত করেছে। কুমিল্লার ১১টি আসনের মধ্যে দুটিতে নতুন মুখ, ব্যাকি আসনগুলোতে পুরাতনরাই বহাল রয়েছেন। নৌকার মাঝি হতে পারেননি এমন অনেক হেভিওয়েট রাজনীতিবিন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন। এমনকি অনেকে মনোনয়নপত্র ইতোমধ্যে কিনেছেন। ফলে নৌকার মাঝিদের সহজে পাশ করার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

    সুষ্ঠু ও স্বাচ্ছ নির্বাচন হলে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের অনেকেরই বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি বলে স্থানীয় সূত্রে জানা

    কুমিল্লা-১ (দাউদকান্দি-তিতাস)। এ সংসদীয় আসনে নৌকার টিকিট পেয়েছেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশের (আইইবি) সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর।

    এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার ঘোষণা দিয়েছেন বর্তমান সাংসদ মেজর জেনারেল (অব.) সুবিদ আলী ভূঁইয়া, তাঁর স্ত্রী মাহমুদা আক্তার ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের কার্য নির্বাহী সদস্য এবং বঙ্গমাতা পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ব্যারিস্টার নাঈম হাসান।

    কুমিল্লা-২ (হোমনা-মেঘনা): এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সাংসদ নিটল-নিলয় গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ভাইস-চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ উইমেন্স চেম্বার অব কর্মাসের সভাপতি সেলিমা আহমাদ মেরী। এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার ঘোষণা দিয়েছেন হোমনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ ও মেঘনা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো। শফিকুল আলম।

    কুমিল্লা-৩ (মুরাদনগর)।

    এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সাংসদ ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন। এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

    কুমিল্লা-৪ (দেবীদ্বার)।

    এ আসনে নৌকার মাঝি হয়েছেন বর্তমান সাংসদ রাজী মোহাম্মদ ফখরুল। তিনি আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এএফএম ফখরুল ইসলাম মুন্সীর ছেলে। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে যাচ্ছেন দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ এবং ডা: ফেরদৌস খন্দকার।

    কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং ব্রাহ্মণপাড়া)।

    এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান এমপি এড, হাশেম খান। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলাআওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন স্বপন, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এহতেশামুল হাসান ভূঁইয়া রুমি, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ এম এ জাহের, এবং কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, সাবেক ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর খাঁন চৌধুরী।

    কুমিল্লা-৬ (সদর ও মহানগর)।

    এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সাংসদ হাজী আ ক ম বাহউদ্দিন বাহার। এ আসনে আ’লীগের কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না বলে জানা গেছে

    কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা)।

    এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সাংসদ ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত। তবে এ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন প্রয়াত সাংসদ অধ্যাপক আলী আশরাফের পুত্র চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ টিটু। সাংগাঠনিকভাবে টিটুর অবদান বেশ শক্তিশালী চান্দিনা উপজেলায়। ফলে এ আসনে জমে উঠবে ভোটের লড়াই।

    কুমিল্লা-৮ (বরুড়া)।

    এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন কিছুদিন আগে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতির পদ পাওয়া এসকিউ গ্রুপের চেয়ারম্যান এ.জেড এমশফিউদ্দিন শামীম। এ আসনে প্রয়াত সাবেক চারবারের সাংসদ আব্দুল হাকিমের ছেলে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মইনুল হোসেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন। তবে তিনি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে নাও থাকতে পারেন। এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র কিনেছেন সেলিম নামের এক বিএনপি নেতা, যিনি সাবেক সাংসদ জাকারিয়া তাহের সুমনের আত্মীয়। এ আসনে বর্তমান সাংসদ নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুলের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার কথা শোনা গেলেও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

    কুমিল্লা-৯ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ)।

    এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সাংসদ কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি তাজুল ইসলাম। তিনি স্পনীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী। এ আসনে কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

    কুমিল্লা-১০ (নাঙ্গলকোট-সদর দক্ষিণ-লালমাই)।

    এ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সাংসদ অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল ওরফে লোটাস কামাল। এ আসনে কেউ ঘরর প্রার্থী হবেন কিনা তা জানা যায়নি।

    কুমিল্লা-১১ (চৌদ্দগ্রাম)।

    এই আসনে নৌকার মাঝি হয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য মো. মুজিবুল হক। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিন করবেন পৌরসভার সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান।

    আরও খবর

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ