ঢাকা ০৭:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ ::
চৌদ্দগ্রামে গাঁজা-ইয়াবা উদ্ধার, কথিত সাংবাদিকসহ আটক ১৩ মানবপাচার মামলায় : নৃত্যশিল্পী ইভানের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৩ জুলাই ধার্য করেছে আদালত  কে কোন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেলেন মোদির মন্ত্রিসভায়? নীলফামারীর ডিমলায় ৭০০কৃষকের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন কালীগঞ্জে গৃহহীন ও ভুমিহীনদের মাঝে জমিসহ ঘড় হস্তান্তর যে কারণে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের লেগ বিফোরে চার রান যোগ হয়নি মিয়ানমারের গুলি’তে খাদ্য সংকটে সেন্টমার্টিনবাসী,নৌ চলাচল বন্ধ  “দৌলতখানে আইস ফ্যাক্টরীর এ্যামোনিয়া গ্যাস বিস্ফোরণ”নিহত ২ আহত ১৮ জন ভারতে লোকসভা নির্বাচনের ফলে কারা এগিয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা জাকের পার্টি ছাত্রফ্রন্টের কেন্দ্রীয় মিশন সভা অনুষ্ঠিত 

জাতীয় চার নেতার কবরে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন

বাংলাদেশের বার্তা
  • আপডেট সময় : ০৫:২৯:২১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ নভেম্বর ২০২২
  • / ৯৬৫০ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

৩রা নভেম্বর জেল হত্যা দিবসে জাতীয় চার নেতার কবরে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় রাজধানীর বনানী কবরস্থানে ১৫ আগস্টে নিহতদের প্রতিও শ্রদ্ধা জানান তিনি। এরপর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংঠনের নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা জানান।

বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) সকালে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এর আগে জেলহত্যা দিবসে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী হিসেবে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি।

এই আনুষ্ঠানিকতা শেষে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা এবং ৩ নভেম্বরের জেলহত্যাকাণ্ড একই সূত্রে গাঁথা। দেশের রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র ও হত্যা-সন্ত্রাসের মূল হোতা বিএনপি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হত্যা আর সন্ত্রাসের রাজনীতি দেশ থেকে চিরতরে বন্ধ করার কথাও জানান ওবায়দুল কাদের।

জেলহত্যা দিবসকে ‘জাতীয় শোক দিবস’ ঘোষণার যে দাবি উঠেছে তা সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্ত বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। পরে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানায়।

বনানীতে শ্রদ্ধা জানানো শেষে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ১৫ আগস্ট ও ৩ নভেম্বর হত‍্যাকাণ্ডে জড়িত এবং এর পেছনের মানুষদের সকল স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার দাবি জানান।

এদিকে, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এ সময় দাবি করেন, জিয়াউর রহমান শুধু বঙ্গবন্ধু হত‍্যাকাণ্ড নয়, জাতীয় চার নেতার হত‍্যাকাণ্ডেও জড়িত।

জেলখানার প্রটোকল ভেঙে আর কোনো রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড যাতে না ঘটে, এমন দাবি তোলেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

জাতীয় চার নেতার কবরে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন

আপডেট সময় : ০৫:২৯:২১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ নভেম্বর ২০২২

৩রা নভেম্বর জেল হত্যা দিবসে জাতীয় চার নেতার কবরে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় রাজধানীর বনানী কবরস্থানে ১৫ আগস্টে নিহতদের প্রতিও শ্রদ্ধা জানান তিনি। এরপর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংঠনের নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা জানান।

বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) সকালে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এর আগে জেলহত্যা দিবসে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী হিসেবে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি।

এই আনুষ্ঠানিকতা শেষে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা এবং ৩ নভেম্বরের জেলহত্যাকাণ্ড একই সূত্রে গাঁথা। দেশের রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র ও হত্যা-সন্ত্রাসের মূল হোতা বিএনপি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হত্যা আর সন্ত্রাসের রাজনীতি দেশ থেকে চিরতরে বন্ধ করার কথাও জানান ওবায়দুল কাদের।

জেলহত্যা দিবসকে ‘জাতীয় শোক দিবস’ ঘোষণার যে দাবি উঠেছে তা সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্ত বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। পরে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানায়।

বনানীতে শ্রদ্ধা জানানো শেষে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ১৫ আগস্ট ও ৩ নভেম্বর হত‍্যাকাণ্ডে জড়িত এবং এর পেছনের মানুষদের সকল স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার দাবি জানান।

এদিকে, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এ সময় দাবি করেন, জিয়াউর রহমান শুধু বঙ্গবন্ধু হত‍্যাকাণ্ড নয়, জাতীয় চার নেতার হত‍্যাকাণ্ডেও জড়িত।

জেলখানার প্রটোকল ভেঙে আর কোনো রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড যাতে না ঘটে, এমন দাবি তোলেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।