• অন্যান্য

    বরগুনায় জিজিই প্রকল্পের উদ্যোগে চাকুরি মেলা অনুষ্ঠিত

      প্রতিনিধি ২৮ আগস্ট ২০২২ , ২:০৭:০৭ প্রিন্ট সংস্করণ

    মেজবাহ উদ্দিন, ব্যুরো প্রধান বরিশাল।

    ২৭ আগস্ট ২০২২: বরগুনা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে‘র আয়োজনে ও জিজিই প্রকল্পের উদ্যোগে বরগুনায় একটি চাকরি মেলা‘র আয়োজন করা হয়েছে।

    যেখান থেকে প্রশিক্ষিত যুব-যুবা তাদের পছন্দ অনুযায়ী চাকরি পেয়েছে। এ মেলায় বরগুনা সদর ও তালতলী উপজেলা থেকে মোট ৬৩জন চাকরিপ্রার্থীরা অংশ নেন। নিয়োগদানকারী প্রতিষ্ঠান ছিল বেক্সিমকো টেক্সটাইল লিমিটেড, বেক্সিমকো গ্রুপ, ঢাকা-বাংলাদেশ।

    স্বাগত বক্তব্য ও জিজিই প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত বিবরণ প্রদান করেন জনাব মো খোরশেদ আলম, প্রজেক্ট ম্যানেজার, স্যাপ বাংলাদেশ এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জনাব মো এনামুল হক, যুগ্ম-পরিচালক, রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (আরডিএফ)।

    প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বরগুনা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে‘র অধ্যক্ষ জনাব এস এম সুলতান মাহমুদ,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মিসেস নীলিমা ইয়াসমিন, হেড অফ কোস্টাল অ্যান্ড ন্যাশনাল প্রোগ্রাম এবং মিসেস সালেহা আক্তার, প্রজেক্ট ম্যানেজার, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ।

    বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন বেক্সিমকো টেক্সটাইলের পক্ষ থেকে জনাব আহমেদ আব্দুল কবির চৌধুরী-জেনারেল ম্যানেজার-হিউম্যান রিসোর্স এন্ড কম্পালাইন্স এবং মোঃ আব্দুর রাজ্জাক-ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার।

    ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার জনাব আব্দুর রাজ্জাক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পর্কে আলোচনা করছেন। তিনি এনআইডি এবং জন্ম নিবন্ধনের মতো প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের পাশাপাশি চাকরি পাওয়ার জন্য অন্যান্য প্রাসঙ্গিক কাগজপত্র সম্পর্কে বর্ণনা করেছেন।

    তিনি বলেন, “এই এলাকার যুব পুরুষ ও যুব নারীদের প্রশিক্ষণ না থাকায় আমাদের কোম্পানি এই এলাকা থেকে কম কর্মী পায়। আমরা আশা করছি এখান থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যক নারী-পুরুষকে আমরা চাকুরি দিতে পারব। এমন একটি মেলার আয়োজনের জন্য বরগুনা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও জিজিই প্রজেক্টকে স্বাগত জানাই”।

    জেনারেল ম্যানেজার-হিউম্যান রিসোর্স এন্ড কম্পালাইন্স, জনাব আহমেদ আব্দুল কবির চৌধুরী তাদের কোম্পানির কাজের পরিবেশ, চাকরির শর্তাবলী, বেতন এবং সুবিধাসহ নারীদের নিরাপত্তার জন্য বিভিন্ন পলিসি সম্পর্কে বিস্তর আলোচনা করেছেন এবং মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে তাদের গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির একটি ভিজ্যুয়াল বর্ণনা দিয়েছেন।

    প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের হেড অফ কোস্টাল অ্যান্ড ন্যাশনাল প্রোগ্রাম নীলিমা ইয়াসমিন বলেছেন, “চাকরিপ্রার্থীদের জন্য এটি একটি দুর্দান্ত সুযোগ কারণ তারা ঢাকার পরিবর্তে এখানে ইন্টারভিউ দিতে পারছেন এবং তাদের পছন্দ অনুযায়ী চাকরি পেতে পারেন”।

    প্রথম অধিবেশন শেষে উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে চাকরিপ্রার্থীরা বিভিন্ন প্রশ্ন করে তাদের সুযোগ-সুবিধার কথা জেনে নেন। প্রশ্নোত্তর পর্ব সঞ্চালনা করেন, সোয়ি্য স্পেশালিস্ট জনাব রেজওয়ানুল হক চৌধুরী, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ।
    প্রথম অধিবেশন সঞ্চাচলা করেন টেকনিক্যাল অফিসার মো আমিনুল হক লিটন।

    প্রথম অধিবেশনের পর দ্বিতীয় অধিবেশনে চাকরিপ্রার্থীরা নিয়োগদানকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সাথে মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষা দিয়েছেন। মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষার আলোকে চাকরিপ্রার্থীরা সাথে সাথেই “ইয়েস কার্ড” পেয়েছেন। প্রথমদিন পর্যন্ত ২০ জন চাকরিপ্রার্থী সুইং মেশিন অপারেটর (ওভেন) হিসেবে “ইয়েস কার্ড” পেয়েছেন।

    উল্লেখ্য, বরগুনা জেলা বাল্যবিবাহ প্রবণ এলাকা হওয়ায় জিজিই প্রকল্প বাল্যবিবাহ প্রতিরোধকল্পে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কারিগরি সহায়তায়, স্যাপ-বাংলাদেশ ও আরডিএফ‘র বাস্তবায়নে বরগুনা সদর ও তালতলী উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নে কাজ করছে। বরগুনা জেলার বেশিরভাগ মানুষ তাদের জীবিকা নির্বাহের জন্য কৃষি ও মৎস্য চাষ এবং মৎস্য আহরণের উপর নির্ভরশীল। প্রত্যন্ত এলাকা,যুব-যুবাদের কম কাজের সুযোগ, বাস্তবভিত্তিক দক্ষ প্রশিক্ষনের অভাব থাকার পাশাপাশি আরও অনেক কারণ রয়েছে বাল্যবিবাহ হওয়ার।

    এই প্রকল্পের লক্ষ্য হল কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে যুবকদের বিশেষ করে মেয়েদের অর্থনৈতিকভাবে ক্ষমতায়ন করা যাতে তারা তাদের দক্ষতার উপর নির্ভর করে কাজের সুযোগ পেতে পারে।

    প্রকল্পের সহায়তায় উপকারভোগীরা এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। চাকুরি সুযোগ প্রদানের জন্য নিয়োগদানকারী প্রতিষ্ঠান এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত উপকারভোগীদের মধ্যে সেতুবন্ধন স্থাপন করে দিয়েছে জিজিই প্রজেক্ট।

    http://এইচ/কে

    আরও খবর

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ