• আলোকিত মূখ

    মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর কৃতিত্ব অর্জন 

      প্রতিনিধি ২৭ নভেম্বর ২০২২ , ৪:৫৩:৩১ প্রিন্ট সংস্করণ

    মীযান মুহাম্মদ হাসান

    এ বছর বাংলাদেশী শিক্ষার্থী হিসাবে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন, বশির ইবনে জাফর। গতকাল বশির ইবনে জাফর তার ফেসবুক পেজে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। যা ইতোমধ্যে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসতে শুরু করেছে।

    প্রতি বছর বিশ্ববিদ্যালয়টি সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ফ্যাকাল্টি থেকে সেরা শিক্ষার্থীদের নির্বাচিত করে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করে।

    শিক্ষা জীবনে ভালো পারফর্ম করা ও অন্যান্য কৃতিত্বের ওপর ভিত্তি করে এ অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়ে থাকে।গতকাল শনিবার (২৬ নভেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের বলরুম হলে আয়োজিত সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাহসা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো চ্যান্সেলর এবং চেয়ারম্যান ইয়ং বারহরমাত সিনেটর প্রফেসর তানশ্রি ড. মুহাম্মদ হানিফা বিন আবদুল্লাহ।

    এ ছাড়া অন্যান্য অতিথির মধ্যে চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. দাতো ইসহাক বিন আবদুল রাজাক, ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. দাতো ইকরাম শাহ বিন ইসমাইল, প্রফেসর ড. দাতো শাহরিল বিন হানিফা, জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রদূত সুবার্তো যাকাতা, সিমেট্রি ইঞ্জিয়ারিং ইন্ডাস্ট্রি’র ডিরেক্টর মি. চংসহ সকল ফ্যাকাল্টির ডিন ও অধ্যাপকরা উপস্থিত ছিলেন।

    ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টেটিভ কাউন্সিল নির্বাচনে ২০২০ ও ২০২১ সালে পরপর দুইবার ভিপি নির্বাচিত হয়েও আলোড়ন সৃষ্টি করেন এই বাংলাদেশি শিক্ষার্থী।

    বশির ইবনে জাফর বলেন, ‘আজ আমি উৎফুল্ল। মালয়েশিয়ায় এসেই আমি সংকল্প করেছি আমাকে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে সর্বোচ্চ চূড়ায় পৌঁছতে হবে। বিশেষ করে গ্র্যাজুয়েশন শেষে আমি যেন এই অ্যাওয়ার্ডটি লাভ করতে পারি সেই চিন্তা ছিল এবং আলহামদুলিল্লাহ্‌ আজ আমি সফল।’

    ২০১৮ সালে রাজধানীর দনিয়া কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করে স্কলারশিপে মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমান এই শিক্ষার্থী। মালয়েশিয়া যাওয়ার এক বছরের মধ্যেই তিনি তার মেধার সাক্ষর রাখতে শুরু করেন।

    বিশ্বের ৫১টি দেশের শিক্ষার্থীদের হারিয়ে প্রথমবারের মতো ২০২০ সালে ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশ সংগঠনের প্রতিনিধি হিসেবে টানা ২বার ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন

    ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। আমন্ত্রণ পান তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মুহাম্মদের একটি লিডারশিপ কনফারেন্সে। পরবর্তী বছর আবারও ভিপি নির্বাচিত হয়ে রেকর্ড গড়েন এই শিক্ষার্থী।

    একাডেমিক জীবনে বশির বিশ্ববিদ্যালয়ের আইটি ক্লাবের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন এক বছর। মাহসা ইসলামিক ক্লাবের যাকাওয়া ব্যুরো প্রধান হিসেবেও কাজ করেছেন এক সেশনে।

    ২০২২ সালে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের অন্যতম বৃহৎ সংগঠন বিএসওএম’র সেক্রেটারি নির্বাচিত হয়ে প্রবাসী শিক্ষার্থীদের সার্বিক কল্যাণেও কাজ করছেন বশির ইবনে জাফর।

    আরও খবর

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ