ঢাকা ০৬:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ ::
চৌদ্দগ্রামে নামাজরত অবস্থায় ইমামকে কুপিয়ে জখম রাখাইনে সংঘাত ও সেন্টমার্টিন পরিস্থিতি | ব্রিঃ জেঃ হাসান মোঃ শামসুদ্দীন (অবঃ) নীলফামারীতে মাদ্রাসার শিক্ষককে কুপিয়ে জখম  চৌদ্দগ্রামে দাফনের ৭ দিন পর বাড়ি ফিরলেন রোকসানা নামের এক তরুণী নৌকা বিকল হয়ে মেঘনায় আটকে ছিল সাত ছাত্র, ৯৯৯ নম্বরে ফোন কলে উদ্ধার শ্রীপুরে ক্যাপিটেশন প্লান্টের চেক বিতরণ কথা বলছে’ গাছ, ভেসে আসছে নারী কণ্ঠের আর্তনাদ বাইশরশি বিশ্ব জাকের মঞ্জিলে জাকের পার্টির ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত চৌদ্দগ্রামে গাঁজা-ইয়াবা উদ্ধার, কথিত সাংবাদিকসহ আটক ১৩ স্বাধীনতার আগে মারা যাওয়া ব্যক্তিকে ২০১৫ সালে ঋণ দিয়েছে কৃষি ব্যাংক

রাস্তা বন্ধ করলে আপনাদের রাস্তাও বন্ধ করে দেওয়া হবে : ওবায়দুল কাদের

বাংলাদেশের বার্তা
  • আপডেট সময় : ০২:৩৮:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০২৩
  • / ৯৬২৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ঢাকার প্রবেশমুখে বিএনপি অবস্থান কর্মসূচির নামে রাস্তা বন্ধ করলে তাদের পথই বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে কঠিন হুঁশিয়ার করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এদিন নয়া পল্টনে সমাবেশ থেকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগী ঢাকার প্রবেশমুখগুলোতে শনিবার সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেন।

শুক্রবার বিকালে বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ গেইটে আওয়ামী লীগের তিন সংগঠনের শান্তি সমাবেশে নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “বাংলাদেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ, শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ অতন্দ্র প্রহরীর মতো পাহারা দিবে।

বিএনপির এই কর্মসূচি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, “রাস্তা বন্ধ করবেন, আপনাদের চলার রাস্তা বন্ধ করে দেব। চোখ রাঙাবেন না, দেশি-বিদেশি যারাই চোখ রাঙাবেন তাদের বলে দিচ্ছি, আমাদের শিকড় অনেক গভীরে। চোখ রাঙিয়ে ক্ষমতাচ্যুত করতে পারবেন না।”নেতাকর্মীদের উদ্দেশে কাদের বলেন, “আপনারা হতাশ হবেন না, কারও চোখ রাঙানোর পরোয়া বঙ্গবন্ধু কন্যা করে না।”

আওয়ামী লীগ সংঘাত চায় না জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপির উদ্দেশে বলেন, “কোথায় দাঁড়াবেন, আমরা ছেড়ে দেব। আমরা সঙ্ঘাত চাই না, আমরা শান্তির জন্য এই সমাবেশ করছি। যত লাফালাফি তাফালিং করেন ফখরুল সাহেব, এই তারেক জিয়ার লাফালাফিতে কাজ হবে না। যতই তাফালিং করুন ক্ষমতার ময়ুর সিংহাসন বহুদূরে। রাজনীতির মাঠে আন্দোলনে আওয়ামী লীগকে হারাতে পারবেন না।

আন্দোলনে আওয়ামী লীগ চ্যাম্পিয়ন। আগুন নিয়ে আসবেন, আগুনে হাত পুড়িয়ে দেতারেক রহমানের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “তারেক জিয়া লন্ডন থেকে ফরমায়েশ দিচ্ছে, এখানে ফখরুল-আমীর খসরুরা লাফালাফি করছে। তাদের কথায় নাকি জাতিসংঘ নির্বাচন পরিচালনা করবে। গণভবন তোমার বাবার? জনগণ শেখ হাসিনাকে ভোট দিয়ে গণভবনে বসিয়েছে, জনগণ যতদিন চাইবে ততদিন শেখ হাসিনা গণভবনে থাকবেন। তারেক রহমান কিছুই করতে পারবে না।

“লন্ডনে বসে তারেক রহমান পুলিশকে ধমক দিচ্ছে, প্রশাসনকে ধমক দিচ্ছে, বলছে ফখরুলদের টাকার অভাব হবে না। তোমার বাবা দম্ভ করে বলেছিল, মানি ইজ নো প্রবলেম। কোথায় গেল তোমার বাবা? তুমি তো এবারও তাই বলছ।”কাদের বলেন, “বাংলাদেশের কোটি কোটি টাকা লুট করে নিয়ে আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে লবিস্ট নিয়োগ করে, কংগ্রেসের কিছু লোকজন দিয়ে জাতিসংঘের অ্যাম্বাসেডরের কাছে চিঠি পাঠায়- জাতিসংঘের আন্ডারে নির্বাচন করতে হবে।“রাজনীতি করবে না বলে মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে পালিয়েছে, সেই তারেক রহমান এখন নেতা। এই তারেককে ধরবে বাংলাদেশের মানুষ। যতই লন্ডনে থেকে আস্ফালন করছে ততই মানুষ থেকে দুরে যাচ্ছে তারেক রহমান “

কারা কারা ঘনঘন লন্ডন যান, টাকা তুলে দিচ্ছেন তারেকের হাতে, সেই খবরও আছে জানিয়ে তিনি বলেন, “নমিনেশনের জন্য টাকা নিয়ে যাচ্ছে, পরে সুবিধা নেয়ার জন্য টাকা দিচ্ছে এই বুঝি ক্ষমতায় এসে যাচ্ছে। যারা আমার মাতৃভূমির টাকা লুট করছে, গণতন্ত্রকে গিলে খাচ্ছে, আমার বঙ্গবন্ধুকে অপমান করছে, তাদের হাতে আমার জন্মভূমির ক্ষমতা ছেড়ে দিতে পারি না।”

সরকারের পদত্যাগের ‘এক দফা’ দাবিতে বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, “এক দফা খাদে পড়ে গেছে। এই এক দফা কোনোদিন ক্ষমতার স্বাদ পূর্ণ করতে পারবে না।”

সমাবেশ শেষে শান্তিপূর্ণভাবে ফিরে যাওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কামরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম ও ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

রাস্তা বন্ধ করলে আপনাদের রাস্তাও বন্ধ করে দেওয়া হবে : ওবায়দুল কাদের

আপডেট সময় : ০২:৩৮:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০২৩

ঢাকার প্রবেশমুখে বিএনপি অবস্থান কর্মসূচির নামে রাস্তা বন্ধ করলে তাদের পথই বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে কঠিন হুঁশিয়ার করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এদিন নয়া পল্টনে সমাবেশ থেকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগী ঢাকার প্রবেশমুখগুলোতে শনিবার সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেন।

শুক্রবার বিকালে বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ গেইটে আওয়ামী লীগের তিন সংগঠনের শান্তি সমাবেশে নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “বাংলাদেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ, শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ অতন্দ্র প্রহরীর মতো পাহারা দিবে।

বিএনপির এই কর্মসূচি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, “রাস্তা বন্ধ করবেন, আপনাদের চলার রাস্তা বন্ধ করে দেব। চোখ রাঙাবেন না, দেশি-বিদেশি যারাই চোখ রাঙাবেন তাদের বলে দিচ্ছি, আমাদের শিকড় অনেক গভীরে। চোখ রাঙিয়ে ক্ষমতাচ্যুত করতে পারবেন না।”নেতাকর্মীদের উদ্দেশে কাদের বলেন, “আপনারা হতাশ হবেন না, কারও চোখ রাঙানোর পরোয়া বঙ্গবন্ধু কন্যা করে না।”

আওয়ামী লীগ সংঘাত চায় না জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপির উদ্দেশে বলেন, “কোথায় দাঁড়াবেন, আমরা ছেড়ে দেব। আমরা সঙ্ঘাত চাই না, আমরা শান্তির জন্য এই সমাবেশ করছি। যত লাফালাফি তাফালিং করেন ফখরুল সাহেব, এই তারেক জিয়ার লাফালাফিতে কাজ হবে না। যতই তাফালিং করুন ক্ষমতার ময়ুর সিংহাসন বহুদূরে। রাজনীতির মাঠে আন্দোলনে আওয়ামী লীগকে হারাতে পারবেন না।

আন্দোলনে আওয়ামী লীগ চ্যাম্পিয়ন। আগুন নিয়ে আসবেন, আগুনে হাত পুড়িয়ে দেতারেক রহমানের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “তারেক জিয়া লন্ডন থেকে ফরমায়েশ দিচ্ছে, এখানে ফখরুল-আমীর খসরুরা লাফালাফি করছে। তাদের কথায় নাকি জাতিসংঘ নির্বাচন পরিচালনা করবে। গণভবন তোমার বাবার? জনগণ শেখ হাসিনাকে ভোট দিয়ে গণভবনে বসিয়েছে, জনগণ যতদিন চাইবে ততদিন শেখ হাসিনা গণভবনে থাকবেন। তারেক রহমান কিছুই করতে পারবে না।

“লন্ডনে বসে তারেক রহমান পুলিশকে ধমক দিচ্ছে, প্রশাসনকে ধমক দিচ্ছে, বলছে ফখরুলদের টাকার অভাব হবে না। তোমার বাবা দম্ভ করে বলেছিল, মানি ইজ নো প্রবলেম। কোথায় গেল তোমার বাবা? তুমি তো এবারও তাই বলছ।”কাদের বলেন, “বাংলাদেশের কোটি কোটি টাকা লুট করে নিয়ে আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে লবিস্ট নিয়োগ করে, কংগ্রেসের কিছু লোকজন দিয়ে জাতিসংঘের অ্যাম্বাসেডরের কাছে চিঠি পাঠায়- জাতিসংঘের আন্ডারে নির্বাচন করতে হবে।“রাজনীতি করবে না বলে মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে পালিয়েছে, সেই তারেক রহমান এখন নেতা। এই তারেককে ধরবে বাংলাদেশের মানুষ। যতই লন্ডনে থেকে আস্ফালন করছে ততই মানুষ থেকে দুরে যাচ্ছে তারেক রহমান “

কারা কারা ঘনঘন লন্ডন যান, টাকা তুলে দিচ্ছেন তারেকের হাতে, সেই খবরও আছে জানিয়ে তিনি বলেন, “নমিনেশনের জন্য টাকা নিয়ে যাচ্ছে, পরে সুবিধা নেয়ার জন্য টাকা দিচ্ছে এই বুঝি ক্ষমতায় এসে যাচ্ছে। যারা আমার মাতৃভূমির টাকা লুট করছে, গণতন্ত্রকে গিলে খাচ্ছে, আমার বঙ্গবন্ধুকে অপমান করছে, তাদের হাতে আমার জন্মভূমির ক্ষমতা ছেড়ে দিতে পারি না।”

সরকারের পদত্যাগের ‘এক দফা’ দাবিতে বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, “এক দফা খাদে পড়ে গেছে। এই এক দফা কোনোদিন ক্ষমতার স্বাদ পূর্ণ করতে পারবে না।”

সমাবেশ শেষে শান্তিপূর্ণভাবে ফিরে যাওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কামরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম ও ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন।