• ক্যাম্পাস

    শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে/ ইবির ফার্মেসি বিভাগে তালা

      প্রতিনিধি ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ , ৩:৫৩:২৩ প্রিন্ট সংস্করণ

    সামী আল সাদ আওন, ইবি প্রতিনিধি:

    ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগে পর্যাপ্ত পরিমাণে শিক্ষক না থাকায় পর্যাপ্ত শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। পরে ক্লাস পরীক্ষা বর্জন করে বিভাগে তালা দিয়ে তারা মানববন্ধন কর্মসূচি করতে চালিয়ে যায়।

    শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকল ক্লাশ পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়ে বিভাগের শিক্ষকদের আটকে রেখে মূল দুইটি ফটক তালা দেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

    এ সময় শিক্ষার্থীরা জানায়, প্রতিষ্ঠার পাঁচ বছর পার হলেও আমাদের বিভাগে শিক্ষক মাত্র চারজন। এরমধ্যে দুইজন রয়েছেন শিক্ষাছুটিতে। শিক্ষকের অভাবে অন্য বিভাগ থেকে অতিথি শিক্ষক এনে আমাদের কোর্স কম্পিলিট করানো হয়, যাদের ফার্মেসি বিষয়ে বিশেষ জ্ঞান নেই। আমাদের ল্যাব আছে কিন্তু ল্যাবের কোন ইন্সট্রাকটর নেই। ফার্মেসির মতো একটা প্রফেশনাল বিষয়ে শিক্ষক নিয়োগে কেনো এতো গড়িমসি।

    তারা আরো জানায়, আমরা শিক্ষক নিয়োগের জন্য গত ৪ সেপ্টেম্বর ভিসি বরাবর স্মারকলিপি দেই। পরে ১৪ তারিখে আমরা তার কাছে গেলে তিনি আমাদের বলেন এখন কিছুই করতে পারবোনা। তোমরা যা খুশি করতে পার। এখন আমরা শেষ পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবো।

    এর আগে গত দুই বছরে ফার্মেসি বিভাগ থেকে মোট চারবার ভিসি বরাবর শূন্যপদ দেখিয়ে নোটিশ পাঠানো হলেও প্রশাসন এর কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি বলে জানা যায়।

    ফার্মেসি বিভাগের সভাপতি সহকারী অধ্যাপক অর্ঘ্য প্রসূণ সরকার বলেন, শিক্ষক নিয়োগ এটা শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি তবে এর জন্য আমাদের তালা দিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা এটা মোটেও শিক্ষার্থীসুলভ আচরণ নয়। আমাদের শিক্ষক দরকার এই ব্যাপারে আমি নিজে অনেক বার গিয়েছি ভিসি স্যারের কাছে। স্যার আমাকে আশ্বাস দিয়েছেন প্রতিবারই।

    দুইজন শিক্ষকের পক্ষে বিভাগ চালানো যে কষ্ট হয়ে পড়ছে এই কারণেই শিক্ষার্থীরা হয়ত আজ আন্দোলন করছে। তবে আমাদের কেনো অবরুদ্ধ করা হবে। সহকারী প্রক্টর স্যাররা আমাদের উদ্ধারে এসেছেন। শিক্ষক নিয়োগ হবে এটা আমরা ও চাই তবে তা সুষ্ঠু ভাবে প্রশাসনের সাহায্যে।

    আমাদের বিভাগে কোনো জট নেই, ল্যাব আছে তবে ল্যাবের ইন্সট্রাক্টর নেই। আমাদের সব ক্লাশ পরীক্ষা চলছে। শিক্ষার্থীরা অতিথি শিক্ষকদের ক্লাশ নিয়মিত ভাবেই চলছে তবে শিক্ষার্থীরা তাদের ক্লাশ কেনো করতে চায়না তা আমি জানিনা।

    এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আব্দুস সালাম বলেন, ছাত্রদের শিক্ষক নিয়োগের যে দাবি সেটা হলো তাদের ন্যায্য দাবী। ইউজিসি এর সাথে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে ২৮ তারিখ আমাদের মিটিং রয়েছে।

    শুধু ফার্মেসী বিভাগ নয় সব বিভাগের শিক্ষকদের নিয়োগের জন্য আমরা আবেদনপত্র দিয়েছি। আমি শিক্ষক নিয়োগের জন্য ক্লিয়ারেন্স পাঠিয়ে দিয়ছি এখন আপনাদের অপেক্ষা করতে হবে।

    এইচ/কে

    আরও খবর

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ