ঢাকা ০৯:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ ::
কথা বলছে’ গাছ, ভেসে আসছে নারী কণ্ঠের আর্তনাদ বাইশরশি বিশ্ব জাকের মঞ্জিলে জাকের পার্টির ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত চৌদ্দগ্রামে গাঁজা-ইয়াবা উদ্ধার, কথিত সাংবাদিকসহ আটক ১৩ স্বাধীনতার আগে মারা যাওয়া ব্যক্তিকে ২০১৫ সালে ঋণ দিয়েছে কৃষি ব্যাংক মানবপাচার মামলায় : নৃত্যশিল্পী ইভানের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৩ জুলাই ধার্য করেছে আদালত  কে কোন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেলেন মোদির মন্ত্রিসভায়? নীলফামারীর ডিমলায় ৭০০কৃষকের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন কালীগঞ্জে গৃহহীন ও ভুমিহীনদের মাঝে জমিসহ ঘড় হস্তান্তর যে কারণে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের লেগ বিফোরে চার রান যোগ হয়নি মিয়ানমারের গুলি’তে খাদ্য সংকটে সেন্টমার্টিনবাসী,নৌ চলাচল বন্ধ 

নীলফামারীতে বৈধকরন ও কয়লার সংকট সমাধানের দাবিতে মানববন্ধন 

বাংলাদেশের বার্তা
  • আপডেট সময় : ১১:০১:০২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২
  • / ৯৬২০ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নবিজুল ইসলাম নবীন,নীলফামারী প্রতিনিধি,

১২০ ফিট উচ্চতার স্থায়ী চিমনি হইতে বৈধ পদ্ধতির জিগজ্যাগ ইটভাটা প্রস্তুত লাইসেন্স, ছাড়পত্র প্রাপ্তির জটিলতা ও কয়লা সংকট সমাধানের দাবিতে
নীলফাফারী জেলার প্রায় অর্ধ শতাধিক ইটভাটা মালিক ও শ্রমিকরা মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর নিকট স্মারক লিপি প্রদান করেছে।

রোববার (২৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জেলার কয়েকশত শ্রমিক কর্মচারী ও ইটভাটা মালিকগন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন। ইটভাটা মালিক সমিতির জেলা সভাপতি দেওয়ান সেলিম
আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ এর স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৩ সালে পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃক সংশোধিত আইনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বর্তমান ১২০ ফুট উচ্চতার চিমনীর পরিবর্তে আগামী ২ বছরের মধ্যে জিগজ্যাগ হাইব্রিড কিলন্, হফম্যান কিলন, ভ্যার্টিকক্যাল শ্যাফট্ কিলন, ট্যানেল কিলন ইত্যাদি ইট ভাটায় রূপান্তর করতে হবে।

পরিবেশ অধিদপ্তরের জারিকৃত আদেশ অনুযায়ী আমরা পর্যায় ক্রমে জিগজ্যাগ ভাটায় রূপান্তর অব্যাহত রেখেছি। কিন্তু ২০১৩ সালের ইটভাটা নিয়ন্ত্রণ আইনে
জিগজ্যাগ ভাটা বৈধ পদ্ধতি উল্লেখ থাকলেও উক্ত আইনের ৮নং ধারার কারনে দেশের অধিকাংশ জিগজ্যাগ ইটভাটার মালিকগণ ছাড়পত্র ও লাইসেন্স পাচ্ছেনা এবং ১২০ ফিট স্থায়ী উচ্চতার চিমনির মালিকগণ জিগজ্যাগে রূপান্তর করতে পারছে
না।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় ২০১৯ সালের সংশোধিত আইন জারী করলেও জিগজ্যাগ ভাটার জন্য ৮(৩)(ঙ) ধারার পরিবর্তন করেনি। এ অবস্থায় দেশে ইট উৎপাদনের ক্ষেত্রে একটি জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

এসময় বক্তব্য রাখেন, ইটঁভাটা মালিক সমিতির সহ-সভাপতি আলহাজ¦ ফজলার রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আরশাদ আনোয়ার এছাড়াও ইট-ভাটা মালিক আতিকুল ইসলাম (আতিক), একরামুল হক বাদশা, জামিয়ার রহমান, জাফর ইকবাল পলাশ, হাজী অকছেদ আলী ও আব্দুল হাইসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

নীলফামারীতে বৈধকরন ও কয়লার সংকট সমাধানের দাবিতে মানববন্ধন 

আপডেট সময় : ১১:০১:০২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২

নবিজুল ইসলাম নবীন,নীলফামারী প্রতিনিধি,

১২০ ফিট উচ্চতার স্থায়ী চিমনি হইতে বৈধ পদ্ধতির জিগজ্যাগ ইটভাটা প্রস্তুত লাইসেন্স, ছাড়পত্র প্রাপ্তির জটিলতা ও কয়লা সংকট সমাধানের দাবিতে
নীলফাফারী জেলার প্রায় অর্ধ শতাধিক ইটভাটা মালিক ও শ্রমিকরা মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর নিকট স্মারক লিপি প্রদান করেছে।

রোববার (২৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জেলার কয়েকশত শ্রমিক কর্মচারী ও ইটভাটা মালিকগন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন। ইটভাটা মালিক সমিতির জেলা সভাপতি দেওয়ান সেলিম
আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ এর স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৩ সালে পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃক সংশোধিত আইনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বর্তমান ১২০ ফুট উচ্চতার চিমনীর পরিবর্তে আগামী ২ বছরের মধ্যে জিগজ্যাগ হাইব্রিড কিলন্, হফম্যান কিলন, ভ্যার্টিকক্যাল শ্যাফট্ কিলন, ট্যানেল কিলন ইত্যাদি ইট ভাটায় রূপান্তর করতে হবে।

পরিবেশ অধিদপ্তরের জারিকৃত আদেশ অনুযায়ী আমরা পর্যায় ক্রমে জিগজ্যাগ ভাটায় রূপান্তর অব্যাহত রেখেছি। কিন্তু ২০১৩ সালের ইটভাটা নিয়ন্ত্রণ আইনে
জিগজ্যাগ ভাটা বৈধ পদ্ধতি উল্লেখ থাকলেও উক্ত আইনের ৮নং ধারার কারনে দেশের অধিকাংশ জিগজ্যাগ ইটভাটার মালিকগণ ছাড়পত্র ও লাইসেন্স পাচ্ছেনা এবং ১২০ ফিট স্থায়ী উচ্চতার চিমনির মালিকগণ জিগজ্যাগে রূপান্তর করতে পারছে
না।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় ২০১৯ সালের সংশোধিত আইন জারী করলেও জিগজ্যাগ ভাটার জন্য ৮(৩)(ঙ) ধারার পরিবর্তন করেনি। এ অবস্থায় দেশে ইট উৎপাদনের ক্ষেত্রে একটি জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

এসময় বক্তব্য রাখেন, ইটঁভাটা মালিক সমিতির সহ-সভাপতি আলহাজ¦ ফজলার রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আরশাদ আনোয়ার এছাড়াও ইট-ভাটা মালিক আতিকুল ইসলাম (আতিক), একরামুল হক বাদশা, জামিয়ার রহমান, জাফর ইকবাল পলাশ, হাজী অকছেদ আলী ও আব্দুল হাইসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।