• অন্যান্য

    বিশ্ববরেণ্য ইসলামিক স্কলার মুফতি মুহাম্মদ রফি উসমানী আর নেই

      প্রতিনিধি ১৯ নভেম্বর ২০২২ , ৮:৪০:২৯ প্রিন্ট সংস্করণ

    মীযান মুহাম্মদ হাসান

    মুফতি রফি উসমানী (রহ.) মুসলিম বিশ্বের একজন বরেণ্য আলেম, মুহাদ্দিস, লেখক ও গবেষক৷ পাকিস্তানের গ্রান্ড মুফতি ও মুফাসসির৷ গত রাত আনুমানিক ১.টা ৫০ মিনিট এ তিনি মৃত্যু বরণ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, তার ছোট ভাই বিশিষ্ট ইসলামিক স্কলার মুফতি তাকী উসমানী।

    তিনি নাওয়াদিরুল ফিকহ ও দরসে মুসলিমসহ মোট ২৭টি গবেষণালব্ধ কিতাব রচনা করেছেন৷
    তিনি দারুল উলূম করাচীর মুহতামিম ও মহাপরিচালক ছিলেন৷

    পাকিস্থানে তিনি ১৯৯৫ সাল থেকে মুফতিয়ে আজম বা গ্রান্ড মুফতি হিসেবে সমাসীন ছিলেন৷ উলামায়ে কেরাম তাকে এই উপাধি দিয়েছিলেন৷ তিনি ইউরোপ, আমেরিকা ও এশিয়া সফর করেছেন এবং সফরনামাও লিখেছেন৷

    একাধিকবার বাংলাদেশেও সফর করেছেন৷ তিনি আধুনিক যুগে উদ্ভাবিত নিত্য নতুন জটিল মাসাইলের শরয়ি সমাধানে দক্ষ ছিলেন৷ ছিলেন যুগের ফকীহ৷ তিনি ভারসাম্যপূর্ণ চিন্তার অধিকারী৷ ছিলেন একজন চিন্তাবিদ ও ইসলামিক স্কলার।

    পাকিস্থান আন্দোলনের অগ্রনায়ক তাফসীরে মারেফুল কুরআনের মুফাসসির ও পাকিস্থানের মুফতীয়ে আজম মুফতি মুহাম্মদ শফী রহ এর বড় ছেলে৷ মুসলিম বিশ্বের পরিচিত ও খ্যাতিমান মুফতি ও ইসলামিক স্কলার মুফতি মুহাম্মদ তাকী উসমানীর বড় ভাই৷

    অবিভক্ত ভারতের ইউপি প্রদেশের দেওবন্দে ১৯৩৬ সালে তাঁর জন্ম৷ তার দাদা ও পিতা দারুল উলূম দেওবন্দের মুহাদ্দিস ছিলেন৷ দেশভাগের সময় ১৯৪৮ সালে তিনি স্বপরিবারে পাকিস্থানে হিজরত করেন৷ দারুল উলূম করাচী ও পানজাব বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর পড়ালেখা করেন৷ তিনি পাকিস্থানে কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ার পৃষ্ঠপোষক ছিলেন৷

    তিনি ছিলেন হাদীস, ফিকহ ও তাফসীর বিষয়ে বিশ্বসেরা এক মনীষী৷ ইসলামি অর্থনীতি ও সমরনীতি নিয়ে তিনি লেখালেখি করেছেন৷

    পাকিস্থানের দৈনিক জং, ডনসহ মিডিয়ায় তিনি লিখতেন৷ টিভি পোগ্রামেও অংশ নিতেন এবং নানা বিষয়ে মতামত দিতেন৷ মুফতি রফি উসমানী মুসলিম বিশ্বের সম্পদ৷ মুসলিম উম্মাহ হারালো যুগসচেতন বরেণ্য এক আলেমকে৷

    আরও খবর

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ