ঢাকা ০৩:৫৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ ::
বাইশরশি বিশ্ব জাকের মঞ্জিলে জাকের পার্টির ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত চৌদ্দগ্রামে গাঁজা-ইয়াবা উদ্ধার, কথিত সাংবাদিকসহ আটক ১৩ স্বাধীনতার আগে মারা যাওয়া ব্যক্তিকে ২০১৫ সালে ঋণ দিয়েছে কৃষি ব্যাংক মানবপাচার মামলায় : নৃত্যশিল্পী ইভানের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৩ জুলাই ধার্য করেছে আদালত  কে কোন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেলেন মোদির মন্ত্রিসভায়? নীলফামারীর ডিমলায় ৭০০কৃষকের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন কালীগঞ্জে গৃহহীন ও ভুমিহীনদের মাঝে জমিসহ ঘড় হস্তান্তর যে কারণে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের লেগ বিফোরে চার রান যোগ হয়নি মিয়ানমারের গুলি’তে খাদ্য সংকটে সেন্টমার্টিনবাসী,নৌ চলাচল বন্ধ  “দৌলতখানে আইস ফ্যাক্টরীর এ্যামোনিয়া গ্যাস বিস্ফোরণ”নিহত ২ আহত ১৮ জন

শ্রীপুরে নবীজীকে কটুক্তি করাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে পুলিশসহ অর্ধশতাধিক আহত

মুজাহিদ শেখ, শ্রীপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি৷
  • আপডেট সময় : ০৮:২৮:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • / ৯৬৫৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার আমলসার ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামে ফেসবুকে নবীজীকে নিয়ে কটুক্তি করায় দুটি হিন্দু পরিবারের বসতঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে স্থানীয় বিক্ষুব্ধরা।

এ সময় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীর সঙ্গে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এতে গ্রামবাসীর ছোড়া ইট পাটকেলের আঘাঁতে পুলিশের অন্তত ১৫ জন এবং রাবার বুলেটের আঘাতে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। এ সময় উত্তেজিত জনতা পুলিশে গাড়ি ভাঙচুর করেন।

এলাকাবাসী জানায়, শ্রীপুর উপজেলার কোদলা গ্রামের রবীন্দ্রনাথ মণ্ডলের ছেলে জয়ন্ত কুমার মণ্ডল শনিবার সকালে নিজের ব্যবহৃত ফেসবুক একাউন্ট থেকে তার এক বন্ধুর ওয়ালে নবীজী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে কটুক্তি করে একটি কমেন্ট পোস্ট করে।

এ ঘটনার পর সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ওই গ্রামের কয়েকজন জয়ন্ত মন্ডলকে বাড়ি থেকে ধরে মারধর করে আটকে রাখে। বিষয়টি জানতে পেরে শ্রীপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জয়ন্ত মন্ডলকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। এ সময় গ্রামের বিক্ষুব্ধরা জড়ো হয়ে পুলিশকে ঘেরাও করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে।

পুলিশও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হামলাকারীদের লক্ষ করে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। কয়েক ঘন্টা ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে চলা সংঘর্ষে পুলিশের পাশাপাশি রামচন্দ্রপুর গ্রামের শিশু ও নারী পুরুষ সহ অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়। তাদেরকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, মাগুরা ২৫০ শয্যা ও ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে পুলিশ বিকাল ৩টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ অন্যান্যদের সহযোগিতায় কটুক্তিকারী যুবক জয়ন্ত মন্ডলকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেলেও উত্তেজিত এলাকাবাসী জয়ন্ত মন্ডলের বাড়ি এবং প্রতিবেশী মহিন্দ্রি মন্ডলের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

মাগুরা পুলিশ সুপার মশিউদ্দৌলা রেজা বলেন, ফেসবুকে কটুক্তিকারী যুবককে গ্রামের মধ্যে আটক করে মারধর করা হচ্ছে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে উত্তেজিত এলাকাবাসী পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পক্ষ থেকে ফাকা কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। পরে ওই যুবককে আটক করে থানায় নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

শ্রীপুরে নবীজীকে কটুক্তি করাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে পুলিশসহ অর্ধশতাধিক আহত

আপডেট সময় : ০৮:২৮:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার আমলসার ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামে ফেসবুকে নবীজীকে নিয়ে কটুক্তি করায় দুটি হিন্দু পরিবারের বসতঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে স্থানীয় বিক্ষুব্ধরা।

এ সময় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীর সঙ্গে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এতে গ্রামবাসীর ছোড়া ইট পাটকেলের আঘাঁতে পুলিশের অন্তত ১৫ জন এবং রাবার বুলেটের আঘাতে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। এ সময় উত্তেজিত জনতা পুলিশে গাড়ি ভাঙচুর করেন।

এলাকাবাসী জানায়, শ্রীপুর উপজেলার কোদলা গ্রামের রবীন্দ্রনাথ মণ্ডলের ছেলে জয়ন্ত কুমার মণ্ডল শনিবার সকালে নিজের ব্যবহৃত ফেসবুক একাউন্ট থেকে তার এক বন্ধুর ওয়ালে নবীজী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে কটুক্তি করে একটি কমেন্ট পোস্ট করে।

এ ঘটনার পর সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ওই গ্রামের কয়েকজন জয়ন্ত মন্ডলকে বাড়ি থেকে ধরে মারধর করে আটকে রাখে। বিষয়টি জানতে পেরে শ্রীপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জয়ন্ত মন্ডলকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। এ সময় গ্রামের বিক্ষুব্ধরা জড়ো হয়ে পুলিশকে ঘেরাও করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে।

পুলিশও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হামলাকারীদের লক্ষ করে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। কয়েক ঘন্টা ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে চলা সংঘর্ষে পুলিশের পাশাপাশি রামচন্দ্রপুর গ্রামের শিশু ও নারী পুরুষ সহ অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়। তাদেরকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, মাগুরা ২৫০ শয্যা ও ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে পুলিশ বিকাল ৩টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ অন্যান্যদের সহযোগিতায় কটুক্তিকারী যুবক জয়ন্ত মন্ডলকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেলেও উত্তেজিত এলাকাবাসী জয়ন্ত মন্ডলের বাড়ি এবং প্রতিবেশী মহিন্দ্রি মন্ডলের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

মাগুরা পুলিশ সুপার মশিউদ্দৌলা রেজা বলেন, ফেসবুকে কটুক্তিকারী যুবককে গ্রামের মধ্যে আটক করে মারধর করা হচ্ছে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে উত্তেজিত এলাকাবাসী পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পক্ষ থেকে ফাকা কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। পরে ওই যুবককে আটক করে থানায় নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।