ঢাকা ০৮:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীপুরে ঈদ পুনর্মিলনী ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত ঢাকার বুকে মাগুরা জেলার প্রতিনিধিত্বকারী এক গর্ব ও অহংকারের নাম মাগুরা লায়ন্স ক্রিকেট ক্লাব শ্রীপুরে সবুজ আন্দোলনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বিআরটিসির বাসেও চলছে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সৌদির সঙ্গে কাল বাংলাদেশেও হতে পারে ঈদ শ্রীপুরে দেশ ও প্রবাসী সমন্বয় কল্যাণ তহবিলের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানাল ফায়ার সার্ভিস চৌদ্দগ্রামে আলকরা প্রবাসী কল্যাণ’র উদ্যাগে ইমাম খতিবদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ফ্রিতে সিম কিনে বিপাকে অর্ধশত পরিবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন ছাত্র উপদেষ্টার দায়িত্ব হস্তান্তর
ব্রেকিং নিউজ ::

 ৭কলেজের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু: ২১ মার্চ ২০২৪,আবেদন শেষ: ২৫ এপ্রিল ২০২৪ * এ বছর জনপ্রতি ফিতরার হার সর্বনিন্ম ১১৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৯৭০ টাকা *

ইবির জিয়া মোড়ে নেই শৃঙ্খলা, গতিরোধক নির্মাণের দাবি শিক্ষার্থীদের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৪৪:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪
  • / ৩৫৯৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মোঃ হাছান, ইবি প্রতিনিধি ৷৷ 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) পাঁচটি আবাসিক হলের একমাত্র কেন্দ্রস্থল জিয়া মোড়ে নেই শৃঙ্খলা। দিনকে দিন বেড়েই চলছে দ্রুতগতিতে বাইক নিয়ে পাল্লাসহ বহিরাগতদের অনিয়ন্ত্রিত যানচলাচল। এ স্থানটি সবচেয়ে জনবহুল হলেও এখানে নেই কোনো গতিরোধক। যার ফলে অধিকাংশ সময় ভয়ে থাকছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা, বিভিন্ন সময় সৃষ্টি হচ্ছে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি।

বিষয়টি প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর করে দ্রুত গতিরোধক নির্মাণের দাবি জানিয়ে লিখিত দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মৃদুল হাসান রাব্বি। বিষয়টি আমলে নিয়ে সংশ্লিষ্ট হল কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সমাধান করা হবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদাৎ হোসেন আজাদ।

সরেজমিনে জিয়া মোড় পরিদর্শন করে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচটি আবাসিক হল (সাদ্দাম হোসেন হল, শহীদ জিয়াউর রহমান হল, লালন শাহ হল, শেখ রাসেল হল ও বঙ্গবন্ধু হলের) একমাত্র কেন্দ্রস্থল জিয়া মোড় প্রায় সারাদিন লোকারণ্য থাকে এ স্থানটি। দ্রুত গতিতে আসা বাইক, ভ্যান ও অন্যান্য যানবাহনের ফলে শিক্ষার্থীদের সমস্যায় সম্মুখীন হতে হয়।

এ বিষয়ে কথা হয় জিয়া মোড় অবস্থানরত আশিকুর নামের একজন আবাসিক শিক্ষার্থী সাথে তিনি বলেন, জিয়া মোড় একটা গতিরোধ দরকার, দ্রুত গতিতে আসা যানবাহনের ফলে নানা সময়ে আমাদের অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির শিকার হতে হয়।

শিক্ষার্থীদের দাবিকে সমর্থন জানিয়ে ইবি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মৃদুল হাসান রাব্বি বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে সাধারণ শিক্ষার্থীরা জিয়া মোড়ে নানা অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির স্বীকার হয়েছেন উচ্চ গতিতে বহিরাগতদের বাইক চলার জন্য। এমনকি অনেক সময় শিক্ষার্থীরা দুর্ঘটনার স্বীকার ও হয়েছে। তাই এখন আমরা একসাথে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছি জিয়া মোড়ে গতিরোধক নির্মাণ করার জন্য।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. আজাদ বলেন, ‘জিয়া মোড়ে গতিরোধক নির্মাণের বিষয়ে একটা আবেদন এসেছে যেহেতু উক্ত স্থানটি হল এলাকার মধ্যে তাই হল প্রভোস্টদের সাথে কথা বলে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।’

জিয়া মোড়ে গতিরোধক নির্মাণের বিষয়ে প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি ও সাদ্দাম হোসেন হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘শীঘ্রই প্রভোস্ট কাউন্সিলের মিটিং বসবে তখন এ বিষয় উপস্থাপন করা হবে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

ইবির জিয়া মোড়ে নেই শৃঙ্খলা, গতিরোধক নির্মাণের দাবি শিক্ষার্থীদের

আপডেট সময় : ০৯:৪৪:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪

মোঃ হাছান, ইবি প্রতিনিধি ৷৷ 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) পাঁচটি আবাসিক হলের একমাত্র কেন্দ্রস্থল জিয়া মোড়ে নেই শৃঙ্খলা। দিনকে দিন বেড়েই চলছে দ্রুতগতিতে বাইক নিয়ে পাল্লাসহ বহিরাগতদের অনিয়ন্ত্রিত যানচলাচল। এ স্থানটি সবচেয়ে জনবহুল হলেও এখানে নেই কোনো গতিরোধক। যার ফলে অধিকাংশ সময় ভয়ে থাকছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা, বিভিন্ন সময় সৃষ্টি হচ্ছে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি।

বিষয়টি প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর করে দ্রুত গতিরোধক নির্মাণের দাবি জানিয়ে লিখিত দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মৃদুল হাসান রাব্বি। বিষয়টি আমলে নিয়ে সংশ্লিষ্ট হল কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সমাধান করা হবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদাৎ হোসেন আজাদ।

সরেজমিনে জিয়া মোড় পরিদর্শন করে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচটি আবাসিক হল (সাদ্দাম হোসেন হল, শহীদ জিয়াউর রহমান হল, লালন শাহ হল, শেখ রাসেল হল ও বঙ্গবন্ধু হলের) একমাত্র কেন্দ্রস্থল জিয়া মোড় প্রায় সারাদিন লোকারণ্য থাকে এ স্থানটি। দ্রুত গতিতে আসা বাইক, ভ্যান ও অন্যান্য যানবাহনের ফলে শিক্ষার্থীদের সমস্যায় সম্মুখীন হতে হয়।

এ বিষয়ে কথা হয় জিয়া মোড় অবস্থানরত আশিকুর নামের একজন আবাসিক শিক্ষার্থী সাথে তিনি বলেন, জিয়া মোড় একটা গতিরোধ দরকার, দ্রুত গতিতে আসা যানবাহনের ফলে নানা সময়ে আমাদের অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির শিকার হতে হয়।

শিক্ষার্থীদের দাবিকে সমর্থন জানিয়ে ইবি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মৃদুল হাসান রাব্বি বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে সাধারণ শিক্ষার্থীরা জিয়া মোড়ে নানা অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির স্বীকার হয়েছেন উচ্চ গতিতে বহিরাগতদের বাইক চলার জন্য। এমনকি অনেক সময় শিক্ষার্থীরা দুর্ঘটনার স্বীকার ও হয়েছে। তাই এখন আমরা একসাথে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছি জিয়া মোড়ে গতিরোধক নির্মাণ করার জন্য।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. আজাদ বলেন, ‘জিয়া মোড়ে গতিরোধক নির্মাণের বিষয়ে একটা আবেদন এসেছে যেহেতু উক্ত স্থানটি হল এলাকার মধ্যে তাই হল প্রভোস্টদের সাথে কথা বলে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।’

জিয়া মোড়ে গতিরোধক নির্মাণের বিষয়ে প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি ও সাদ্দাম হোসেন হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘শীঘ্রই প্রভোস্ট কাউন্সিলের মিটিং বসবে তখন এ বিষয় উপস্থাপন করা হবে।’