ঢাকা ০৪:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ ::
বাইশরশি বিশ্ব জাকের মঞ্জিলে জাকের পার্টির ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত চৌদ্দগ্রামে গাঁজা-ইয়াবা উদ্ধার, কথিত সাংবাদিকসহ আটক ১৩ স্বাধীনতার আগে মারা যাওয়া ব্যক্তিকে ২০১৫ সালে ঋণ দিয়েছে কৃষি ব্যাংক মানবপাচার মামলায় : নৃত্যশিল্পী ইভানের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৩ জুলাই ধার্য করেছে আদালত  কে কোন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেলেন মোদির মন্ত্রিসভায়? নীলফামারীর ডিমলায় ৭০০কৃষকের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন কালীগঞ্জে গৃহহীন ও ভুমিহীনদের মাঝে জমিসহ ঘড় হস্তান্তর যে কারণে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের লেগ বিফোরে চার রান যোগ হয়নি মিয়ানমারের গুলি’তে খাদ্য সংকটে সেন্টমার্টিনবাসী,নৌ চলাচল বন্ধ  “দৌলতখানে আইস ফ্যাক্টরীর এ্যামোনিয়া গ্যাস বিস্ফোরণ”নিহত ২ আহত ১৮ জন

কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ইয়াবাসহ সাতজনকে আটক করেন/ আমর্ড পুলিশ

বাংলাদেশের বার্তা
  • আপডেট সময় : ০৫:১০:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • / ৯৬১৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আজিজ উদ্দিন।।

কক্সবাজার উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে ৬ হাজার ইয়াবাসহ সাত রোহিঙ্গা মাদক কারবারিকে আটক করেছে ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে দিকে পান বাজার ক্যাম্প থেকে ইয়াবাসহ তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, আব্দুল ছেলে মোহাম্মদ সোফায়েদ (২৪), ইলিয়াস ছেলে মোঃ জুনায়েদ (২০), মৃত গুরা মিয়া ছেলে মাহমুদ হোসেন (৩৫), মৃত আবু হাশিম ছেলে নুর কালাম (৩১), মৃত আব্দুর শুক্কুর ছেলে রমজান আলী (২৫), আব্দুল মজিদ ছেলে মোঃ জকির (৩০), আবুল উসমান ছেলে মোঃ রাজেক (১৭), সবাই উখিয়ার বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা।

শনিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করে ৮-এপিবিএন এর সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ ফারুক আহমেদ বলেন, পান বাজার ক্যাম্পে মাদক পাচারের খবরে তিনিসহ পুলিশের একটি দল পানির ট্যাংক সংলগ্ন কাঁচা রাস্তার উপর মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে।

এসময় সন্দেহজনক সাত রোহিঙ্গাকে আটক করে। পরে তাদের শরীরে ও সাথে থাকা ব্যাগ তল্লাশি চালিয়ে ৬ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়। এ ঘটনায় ইয়াবাসহ আটককৃত রোহিঙ্গাদের মাদক মামলা দিয়ে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন ৮ এপিবিএন এর সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ ফারুক আহমেদ।

তিনি বাংলাদেশের বার্তা কক্সবাজার প্রতিনিধিকে জানান, ৮এপিবিএন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দায়িত্বে নিয়জিত। আমরা তাদের জান মাল রক্ষা করার জন্য দিনরাত আমাদের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। আমরা চাই রোহিঙ্গা ক্যাম্প মাদক মুক্ত হোক।

মাদক মুক্ত করার জন্য আমাদের সদস্যরা সার্বক্ষণিক দায়িত্বে পালন করছে। এমনকি আমাদের গোয়েন্দা সংস্থার লোকও নজরধারি করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স কাজে লাগাতে ৮এবিপিএন সর্বদা প্রস্তত আছে।

এইচ/কে

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ইয়াবাসহ সাতজনকে আটক করেন/ আমর্ড পুলিশ

আপডেট সময় : ০৫:১০:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

আজিজ উদ্দিন।।

কক্সবাজার উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে ৬ হাজার ইয়াবাসহ সাত রোহিঙ্গা মাদক কারবারিকে আটক করেছে ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে দিকে পান বাজার ক্যাম্প থেকে ইয়াবাসহ তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, আব্দুল ছেলে মোহাম্মদ সোফায়েদ (২৪), ইলিয়াস ছেলে মোঃ জুনায়েদ (২০), মৃত গুরা মিয়া ছেলে মাহমুদ হোসেন (৩৫), মৃত আবু হাশিম ছেলে নুর কালাম (৩১), মৃত আব্দুর শুক্কুর ছেলে রমজান আলী (২৫), আব্দুল মজিদ ছেলে মোঃ জকির (৩০), আবুল উসমান ছেলে মোঃ রাজেক (১৭), সবাই উখিয়ার বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা।

শনিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করে ৮-এপিবিএন এর সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ ফারুক আহমেদ বলেন, পান বাজার ক্যাম্পে মাদক পাচারের খবরে তিনিসহ পুলিশের একটি দল পানির ট্যাংক সংলগ্ন কাঁচা রাস্তার উপর মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে।

এসময় সন্দেহজনক সাত রোহিঙ্গাকে আটক করে। পরে তাদের শরীরে ও সাথে থাকা ব্যাগ তল্লাশি চালিয়ে ৬ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়। এ ঘটনায় ইয়াবাসহ আটককৃত রোহিঙ্গাদের মাদক মামলা দিয়ে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন ৮ এপিবিএন এর সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ ফারুক আহমেদ।

তিনি বাংলাদেশের বার্তা কক্সবাজার প্রতিনিধিকে জানান, ৮এপিবিএন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দায়িত্বে নিয়জিত। আমরা তাদের জান মাল রক্ষা করার জন্য দিনরাত আমাদের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। আমরা চাই রোহিঙ্গা ক্যাম্প মাদক মুক্ত হোক।

মাদক মুক্ত করার জন্য আমাদের সদস্যরা সার্বক্ষণিক দায়িত্বে পালন করছে। এমনকি আমাদের গোয়েন্দা সংস্থার লোকও নজরধারি করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স কাজে লাগাতে ৮এবিপিএন সর্বদা প্রস্তত আছে।

এইচ/কে