ঢাকা ০৭:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
দুর্গাপুরে আওয়ামী লীগের কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত অবিবাহিত তরুণীর নামে মাতৃত্বকালীন ভাতা নেন চেয়ারম্যান  শ্রীপুরে পীর-আওলিয়ার মাজার জিয়ারতের মধ্যদিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রাজন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পুরস্কার পেলেন কুবির চার শিক্ষার্থী জাতীয় পদক প্রাপ্ত সাবেক প্রধান শিক্ষক কাজী ফয়জুর রহমানের দাফন সম্পন্ন শ্রীপুরে ঈদ পুনর্মিলনী ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত ঢাকার বুকে মাগুরা জেলার প্রতিনিধিত্বকারী এক গর্ব ও অহংকারের নাম মাগুরা লায়ন্স ক্রিকেট ক্লাব শ্রীপুরে সবুজ আন্দোলনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বিআরটিসির বাসেও চলছে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সৌদির সঙ্গে কাল বাংলাদেশেও হতে পারে ঈদ
ব্রেকিং নিউজ ::

 ৭কলেজের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু: ২১ মার্চ ২০২৪,আবেদন শেষ: ২৫ এপ্রিল ২০২৪ * এ বছর জনপ্রতি ফিতরার হার সর্বনিন্ম ১১৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৯৭০ টাকা *

বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামাগার ‘ন্যায়কুঞ্জ’ উদ্বোধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৫৯:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ জুন ২০২৩
  • / ৩৫৯০ বার পড়া হয়েছে
বাংলাদেশের বার্তা অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নবিজুল ইসলাম নবীন,নীলফামারী প্রতিনিধি।

নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আগত বিচারপ্রার্থীরা স্বস্তিতে বিশ্রাম নিতে পারেন সেজন্য বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট দেশের প্রতিটি জেলায় বিশ্রামাগার নির্মানের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ আদালত চত্তরে বিচারপ্রার্থিদের জন্য বিশ্রামাগারের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করা হয়েছে। যা ন্যায়কুঞ্জ নামে পরিচিত।

শনিবার (০৩ জুন) বিকালে জেলা জজ আদালতের কনফারেন্স রুমে বিচারকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা শেষে আদালত প্রাঙ্গণে এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগের বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম। এরপর আদালত প্রাঙ্গণে একটি অর্জুন গাছের চারা রোপন করেন তিনি।

নীলফামারী গণপূর্ত বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, দেশের প্রত্যেক জেলার জেলা ও দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে ‘ন্যায়কুঞ্জ’ নামে বিচারপ্রার্থী-বিশ্রামাগার স্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৫৩.২২ লাখ টাকা প্রকল্প মুল্য নির্মিত হচ্ছে এ বিশ্রামাগারটি। এক হাজার স্কয়ার ফিটের এ ন্যায়কুঞ্জ’টির নির্মাণে কাজ করবেন নীলফামারী থানা পাড়া এলাকার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দেওয়ান উজ্জল আহমেদ।

এসময় নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মাহমুদুল করিম, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মোঃ গোলাম সারোয়ার, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক এ.বি.এম. গোলাম রসুল, আপীল বিভাগের অরিরিক্ত রেজিস্ট্রার শেখ মোহাঃ আমিনুল ইসলাম, বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুল ইসলামসহ অন্যান্য বিচারক, জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম, আইনজীবী, আদালতের কর্মকর্তা- কর্মচারীরা এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ন্যায়কুঞ্জ‍‍`র নির্মাণকাজ উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, দেশের সব জেলা জজ আদালতগুলোতে প্রধান বিচারপতির আগ্রহ এবং নির্দেশনায় ন্যায়কুঞ্জ স্থাপনের কাজ শুরু করা হয়েছে। এই ন্যায়কুঞ্জতে দূরদূরান্ত হতে সাক্ষীরাসহ মামলার বিচারপ্রার্থী জনগণ এসে অপেক্ষা করতে পারবে। এই ন্যায়কুঞ্জে দুগ্ধপোষ্য শিশুদের মায়ের জন্য ব্রেস্টফিডিং রুমের আলাদা ব্যবস্থা করা হবে। তাছাড়া এখানে বিচারপ্রার্থী জনগণের জন্য শৌচাগারসহ সুপেয় পানির ব্যবস্থা থাকবে।

তিনি তার বক্তব্যে বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি যে উদ্দেশ্য ন্যায়কুঞ্জ নির্মাণ করার উদ্যোগ নিয়েছেন সে উদ্দেশ্য যেন ব্যাহত না হয় সে বিষয়ে সতর্ক থাকার জন্য সবাইকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামাগার ‘ন্যায়কুঞ্জ’ উদ্বোধন

আপডেট সময় : ০২:৫৯:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ জুন ২০২৩

নবিজুল ইসলাম নবীন,নীলফামারী প্রতিনিধি।

নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আগত বিচারপ্রার্থীরা স্বস্তিতে বিশ্রাম নিতে পারেন সেজন্য বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট দেশের প্রতিটি জেলায় বিশ্রামাগার নির্মানের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ আদালত চত্তরে বিচারপ্রার্থিদের জন্য বিশ্রামাগারের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করা হয়েছে। যা ন্যায়কুঞ্জ নামে পরিচিত।

শনিবার (০৩ জুন) বিকালে জেলা জজ আদালতের কনফারেন্স রুমে বিচারকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা শেষে আদালত প্রাঙ্গণে এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগের বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম। এরপর আদালত প্রাঙ্গণে একটি অর্জুন গাছের চারা রোপন করেন তিনি।

নীলফামারী গণপূর্ত বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, দেশের প্রত্যেক জেলার জেলা ও দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে ‘ন্যায়কুঞ্জ’ নামে বিচারপ্রার্থী-বিশ্রামাগার স্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৫৩.২২ লাখ টাকা প্রকল্প মুল্য নির্মিত হচ্ছে এ বিশ্রামাগারটি। এক হাজার স্কয়ার ফিটের এ ন্যায়কুঞ্জ’টির নির্মাণে কাজ করবেন নীলফামারী থানা পাড়া এলাকার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দেওয়ান উজ্জল আহমেদ।

এসময় নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মাহমুদুল করিম, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মোঃ গোলাম সারোয়ার, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক এ.বি.এম. গোলাম রসুল, আপীল বিভাগের অরিরিক্ত রেজিস্ট্রার শেখ মোহাঃ আমিনুল ইসলাম, বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুল ইসলামসহ অন্যান্য বিচারক, জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম, আইনজীবী, আদালতের কর্মকর্তা- কর্মচারীরা এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ন্যায়কুঞ্জ‍‍`র নির্মাণকাজ উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, দেশের সব জেলা জজ আদালতগুলোতে প্রধান বিচারপতির আগ্রহ এবং নির্দেশনায় ন্যায়কুঞ্জ স্থাপনের কাজ শুরু করা হয়েছে। এই ন্যায়কুঞ্জতে দূরদূরান্ত হতে সাক্ষীরাসহ মামলার বিচারপ্রার্থী জনগণ এসে অপেক্ষা করতে পারবে। এই ন্যায়কুঞ্জে দুগ্ধপোষ্য শিশুদের মায়ের জন্য ব্রেস্টফিডিং রুমের আলাদা ব্যবস্থা করা হবে। তাছাড়া এখানে বিচারপ্রার্থী জনগণের জন্য শৌচাগারসহ সুপেয় পানির ব্যবস্থা থাকবে।

তিনি তার বক্তব্যে বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি যে উদ্দেশ্য ন্যায়কুঞ্জ নির্মাণ করার উদ্যোগ নিয়েছেন সে উদ্দেশ্য যেন ব্যাহত না হয় সে বিষয়ে সতর্ক থাকার জন্য সবাইকে নির্দেশনা প্রদান করেন।